রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, , ১৮ জ্বিলক্বদ ১৪৪৫

এখতিয়ারের মধ্যে থাকা দেশ দু’টির যে কোনো সম্পদ জব্দ করবে তেহরান

যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনের বিরুদ্ধে যে নিষেধাজ্ঞা দিলো ইরান

যুক্তরাষ্ট্র ও ব্রিটেনের বিরুদ্ধে যে নিষেধাজ্ঞা দিলো ইরান
ছবি- সংগৃহীত

গাজা ইস্যুতে ইসরায়েলকে সমর্থন করায় কয়েকজন মার্কিন ও ব্রিটিশ কর্মকর্তাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে ইরান। বৃহস্পতিবার (২ এপ্রিল) এ নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা করা হয়। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বরাতে এ খবর প্রকাশ করেছে বার্তা সংস্থা এএফপি। ওই খবরে বলা হয়, যুক্তরাষ্ট্রের সাত নাগরিক এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় রয়েছে। তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন- যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ অপারেশন কমান্ডের কমান্ডার জেনারেল ব্রায়ান পি ফেন্টন ও মার্কিন নৌবাহিনীর পঞ্চম নৌবহরের সাবেক কমান্ডার ভাইস অ্যাডমিরাল ব্র্যাড কুপার।খবরে আরও বলা হয়েছে, যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষামন্ত্রী গ্রান্ট শাপস, ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর কৌশলগত কমান্ডের কমান্ডার জেমস হকেনহুল ও লোহিত সাগরে যুক্তরাজ্যের রয়্যাল নেভির উপরেও এই নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।এছাড়াও মার্কিন অস্ত্র নির্মাতা লকহিড মার্টিন, শেভরন ও ব্রিটিশ এলবিট সিস্টেমস, পার্কার মেগিট ও রাফাল ইউকের ওপরও বিধি-নিষেধ আরোপ করেছে ইরান। এই নিষেধাজ্ঞার আওতায় ইরানের আর্থিক ও ব্যাংকিং ব্যবস্থায় থাকা ওইসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের থাকা অ্যাকাউন্ট ও লেনদেন ব্লক করে দেওয়া হবে। সেই সঙ্গে ইরানের এখতিয়ারের মধ্যে থাকা তাদের যে কোনো সম্পদ জব্দ করা হবে। এমনকি, ইরানি ভূখণ্ডে প্রবেশও করতে পারবে না তারা। তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহ বলছে, ব্রিটিশ ও মার্কিন এসব ব্যক্তি বা সংস্থার উপর ইরানের এই পদক্ষেপগুলোর প্রভাব ও তাদের সম্পদ বা ইরানের সঙ্গে তাদের লেনদেনের বিষয়টি অস্পষ্টই রেখেছে তেহরান।

তথ্যসূত্র- ঢাকা ট্রিবিউন